সাত পাঁচ সখী করে বসিয়া ছিলাম রঙ্গে | Lyrics

সাত পাঁচ সখী করে,             বসিয়া ছিলাম রঙ্গে,
হেন কালে পাপ ননদিনী।
দেখিয়া আমাকে,                  তার কাছে ডাকে,
“আইসহ শ্যাম সোহাগিনী।।”
রাধা বিনোদিনি! তোমারে বলিতে কি?
চাই দুই তিন কথা,               যে কথা তোমার,
বড়ই শুনিয়াছি।।
তুমি কোন দিনে,                     যমুনা সিনানে,
গিয়াছিলা নাকি একা?
শ্যামের সহিতে,                     কদম্ব তলাতে,
হৈয়াছিল নাকি দেখা?
সেই দিন হৈতে,                     সেইত পথেতে,
করে নাকি আনাগোনা?
রাধা রাধা বলি,                     বাজায় মুরলী,
তাহে হৈল জানা শুনা।।
যে দিন দেখিব,                     আপন নয়নে,
তা সঞে কহিতে কথা।
কেশ ছিঁড়ি বেশ,                     দূরে তেয়াগিব,
ভাঙ্গিব বাড়িয়া মাথা।।
একি পরমাদ,                     দেহ পরিবাদ,
এছার পাড়ার লোকে।
পর চরচায়,                     যে থাকে সদায়,
সাপে খাক্‌ তার বুকে।।
গোকুল নগরে,                     গোপের মাঝারে,
এত দিন বসি মোরা।
কভু না জানিনু,                     কভু না শুনিনু,
শ্যাম কাল কি গোরা।।
বড়ুয়ার ঝিয়ারী,                     বড় নাম ধরি,
তাহে বড়ুয়ার বৌ।
নিরমল কুলে,                    এ কথা যে তোলে,
সেই নারী গরল খাউ।।
চিত দড় করি,                     থাকলো সুন্দরী,
যেন কভু নাহি টলে।
কাহার কথায়,                    কার কিবা হয়,
বড়ু চণ্ডীদাস বলে।

————–

সম্ভোগ মিলন ।। গান্ধার ।।

আইসহ – আইস। আনাগোনা – যাতায়াত। সঞে – সঙ্গে। চরচায় – চর্চ্চায়।

Leave a Reply