পুন আর বার আসি তরাতর রামিনী জগতমাতা – Lyrics

রাগাত্মিক পদ ।।

পুন আর বার,                    আসি তরাতর,
রামিনী জগতমাতা।
ধরিয়া রামিনী,                   কহিছেন বাণী,
শুনহ আমার কথা।।
যাহা কহি বাণী,                  শুনহ রামিনি,
এ কথা ভুবন পার।
পরকিয়া রতি,                  করহ আরতি,
সেই সে ভজন সার।।
চণ্ডীদাস নামে,                  আছে এক জন,
তাহারে আরোপ কর।
অবশ্য করিলে,                  নিত্যধাম পাবে,
আমার বচন ধর।।
নেত্রে বেদ দিয়া,(১)                  সদাই ভজিবা,
আনন্দে থাকিবা তবে।
সমুদ্র(২) ছাড়িয়া,                  নরকে যাইবা,
ভজন নাহিক হবে।।
আর তিন দিয়,                  বেদে মিশাইয়া,(৩)
সতত তাহাই যজ।
নিত্য এক মনে,                  ভাব রাত্রি দিনে,
মম পদ সদাভজ।।
ব্যভিচারী হইলে,                   প্রাপ্তি নাহি মিলে,
নরকে যাইবে তবে।
রতি স্থির মনে,                  ভাব রাত্রি দিনে,
সহজ পাইবে তবে।।
আর এক বানী,                  শুনহ রামিনি,
এ কথা রাখিও মনে।
বাশুলী আদেশে,                  কহে চণ্ডীদাসে,
এ কথা পাছে কেহ শুনে।।

————–

(১) “নেত্রে বেদ দিয়া” ইত্যাদি–রাধাকৃষ্ণ প্রীতি দিয়া সদাই ভজন করিলে আনন্দে থাকিবে। শ্রীমদ্ভগবদ্গীতার ১০ম অধ্যায়ে ভগবানের এই প্রকার উক্তি আছে, যথা–“তেষাং সতত যুক্তানাং ভজতাং প্রীতি পূর্ব্বকম্‌। দদামি বুদ্ধিযোগং তং যেন মামুপয়ান্তি তে।।”
“নেত্র”–তিন, — পিরীতি।
“বেদ”–চারি, — রাধাকৃষ্ণ।
(২) “সমুদ্র ছাড়িয়া নরকে যাইবে” ইত্যাদি–ঐ রাধাকৃষ্ণ প্রীতি যদি ত্যাগ কর, নরকে যাইতে হইবে।
“সমুদ্র”–সাত, — রাধাকৃষ্ণ পিরীতি।
(৩) “আর তিন দিয়া বেদে মিশাইয়া” ইত্যাদি–অর্থাত শ্রীকৃষ্ণকে সদাই ভজনা কর।
“তিন”–রমণ, — শ্রীকৃষ্ণ।
“বেদ”–চারি, বৃন্দাবন — শ্রীকৃষ্ণ।

Leave a Reply